তারিখ : ২৪ জুলাই ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

খাদ্য বিষমুক্ত ও নিরাপদ করার দাবিতে মানববন্ধন

খাদ্য বিষমুক্ত ও নিরাপদ করার দাবিতে মানববন্ধন
[ভালুকা ডট কম : ০৩ মে]
খাদ্য উৎপাদন থেকে ভোক্তা পর্যায়ে ফলমূলসহ সকল খাদ্য বিষমুক্ত ও নিরাপদ করার দাবী জানিয়েছেন পরিবেশবাদীরা। আসন্ন রমজান মাসকে সামনে রেখে  আজ  (০৩ মে, শুক্রবার) সকালে ৮টি নাগরিক সংগঠনের উদ্যোগে নিরাপদ ও বিষমুক্ত খাদ্যের দাবীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সমানে আয়োজিত এক মানব বন্ধন থেকে এ দাবী  জানানো হয়েছে। খাদ্যের বিশুদ্ধতা নিশ্চিত করতে মানব বন্ধন থেকে বারো দফা সুপারিশমালাও  তুলে ধরা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে উদ্যোক্তা সংগঠন পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) ‘র সমন্বয়কারী আতিক মোরশেদ রেডিও তেহরানকে জানান, পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে বিভিন্ন খাদ্যপণ্য বিশেষ করে ইফতারিতে ব্যবহৃত খাদ্যপণ্য নিয়ে  ভেক্তাদের দুশ্চিন্তার শেষ নেই। এ অবস্থায় জনগনকে সচেত করা এবং  জনসাধারণের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করার জন্য সরকারকে দায়িত্বশীল হবার আহবান  জানাতেই তাদের  এ মানববন্ধন।

আজকের মানববন্ধনে বক্তাগণ তাদের উদ্বেগ ব্যক্ত করে বলেন, এ সময় খাদ্য  উৎপাদন, আমদানি, মজুতকরণ প্রক্রিয়ায় কৃষক,উৎপাদনকারী,অসাধু ব্যবসায়ী, আমদানিকারক, মজুতদার, পাইকারী ও খুচরা বিক্রেতা অধিক মুনাফার লোভে এসব খাদপণ্যে ক্ষতিকর বিষাক্ত রাসায়নিক প্রয়োগ করে এবং নানা ভেজালের মিশ্রণ করে থাকে। যা আমাদের শরীরে নানা রোগের সৃষ্টি  করছে এবং ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে।  তাছাড়া, আগামী প্রজন্ম বিভিন্ন গুরুতর স্বাস্থ্য ঝুঁকি নিয়ে বড় হচ্ছে। জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় উৎপাদন পর্যায় থেকে বাজারজাতসহ খাদ্য গ্রহণ পর্যন্ত খাদ্যকে নিরাপদ রাখতে জোর কার্যক্রম গ্রহণ করা জরুরী।

বিষমুক্ত নিরাপদ খাদ্যের গুরুত্ব প্রসঙ্গে পরিবেশ অধিদপ্তরের সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিচালক জনাব আবদুস সোবহান রেডিও তেহরানকে বলেন, ভেজাল ও বিষাক্ত খাদ্যে শিশুর মৃত্যু ঝুঁকি রয়েছে। গর্ভবতী মহিলারা জন্ম দিতে পারে বিকলাঙ্গ শিশু,গর্ভস্থ শিশু প্রতিবন্ধী হওয়ার আশংকাও থাকে। দীর্ঘদিন ধরে এসব খাবার খাওয়ার ফলে বয়স্ক ও শিশুদের মধ্যে ক্যান্সার জাতীয় রোগের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে খুব বেশী। কিছু খাবার এমনই বিষাক্ত যে তা ডিএনএকে পর্যন্ত বদলে দিতে পারে।

বিষমুক্ত নিরাপদ খাদ্যের বিষয়ে ভোক্তাদের পাশাপাশি  উৎপাদক,  বিক্রেতা ও  ব্যবসায়ীদের সচেতন করার উপর গুত্ব আরোপ করে পরিবেশ অধিদপ্তরের সাবেক এ কর্মকর্তা সংশ্লিষ্ট সরকারী সংস্থাগুলিকেও  সকল খাদ্য দ্রব্য ও ফলমুলের উৎপাদন ও বিপনন পর্যায়ে যথাযথ তদারকি এবং  আইন  প্রয়োগে কঠোর হবার আহবান জানান।

আজকের মানব বন্ধন থেকে যে সব সুপারিশ করা হয়েছে  তার মধ্য রয়েছে : উৎপাদন পর্যায় থেকে খাদ্য গ্রহণ পর্যন্ত প্রতিটি স্তরে খাদ্যের বিশুদ্ধতা নিশ্চিত করতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা;  বিষ ও ভেজালমুক্ত ইফতারি সামগ্রী নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও সংস্থার মধ্যে সমন্বয় সাধনপূর্বক সমন্বিত  মনিটরিং ও আইন প্রয়োগ নিশ্চিত করা: কার্যক্রম পরিচালনা; ভেজাল বিরোধী টিম কর্তৃক নিয়মিতভাবে খেজুরসহ অন্যান্য ফল, মুড়ি, সেমাই, রং মিশ্রিত সকল খাবার, ইত্যাদি পরীক্ষা করা এবং এ সকল খাদ্য মজুদকারী গুদাম/কারখানা/ মোকাম পরিদর্শন করা এবং সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ রাসায়নিক পদার্থের আমদানিকারক ও ব্যবহারকারী এবং লেবেল ছাড়া বা মিথ্যা লেবেলের অধীন কীটনাশক বিক্রয়ের  বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা ও সময়োপযোগী কীটনাশক নিয়ন্ত্রণ আইন প্রণয়ন করা।

আরো সুপারিশ করা হয়েছে: খাদ্যে রাসায়নিক দ্রব্যাদি মিশানোর সাথে জড়িত ও রাসায়নিক দ্রব্যাদিযুক্ত খাদ্য বিক্রয়কারীদের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে দন্ড প্রদানই যথেষ্ট নয়। এদের বিরুদ্ধে স্পেশাল পাওয়ার অ্যাক্ট, ১৯৭৪ এর ২৫-গ ধারা প্রয়োগ করা যেতে পারে। এই আইনের ২৫-গ ধারায় খাদ্যে ভেজাল দেয়ার জন্য কিংবা মেয়াদোত্তীর্ণ বা ভেজাল খাবার বিক্রয়ের জন্য মৃত্যুদন্ড বা যাবজ্জীবন কারাদন্ডের বিধান রয়েছে।

সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ রাসায়নিক পদার্থের আমদানিকারক ও ব্যবহারকারী এবং লেবেল ছাড়া বা মিথ্যা লেবেলের অধীন কীটনাশক বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা ও সময়োপযোগী কীটনাশক নিয়ন্ত্রণ আইন প্রণয়ন করারও দাবী করেছেন পরিবেশবাদীরা। এ ছাড়া, ফরমালিন নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৫,নিরাপদ খাদ্য আইন, ২০১৩ ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ কঠোর বাস্তবায়ন এবং অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করা হয়েছে আজকের মানব বন্ধন থেকে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

জাতীয় বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই