তারিখ : ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

সাপাহার সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে জলাবদ্ধতা

সাপাহার সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে জলাবদ্ধতা,দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা
[ভালুকা ডট কম : ১৫ জুলাই]
নওগাঁর সাপাহারের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ সাপাহার সরকারি ডিগ্রি কলেজ ক্যাম্পাসে অল্প বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে মহাবিপদে পড়েছে কলেজের প্রায় ৭হাজার শিক্ষার্থী। কলেজের নিজস্ব কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় হালকা বৃষ্টিতেও এমন জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়।

ক্লাস করতে আসা শিক্ষার্থীদের কাপড় থেকে শুরু করে বই-খাতা নোংড়া হয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন কলেজের অনেক শিক্ষার্থী। দীর্ঘদিন ধরে এমন সমস্যা চলছে কলেজ ক্যাম্পাসে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের কোন ভ্রুক্ষেপ নেই। এতে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।কলেজ ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায় গোটা মাঠ, রাস্তাসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। প্রায় হাঁটু পানিতে শিক্ষার্থীদের জুতা স্যান্ডেল হাতে নিয়ে পার হতে হচ্ছে।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, ক্যাম্পাসে অল্প বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে ক্লাস পরীক্ষায় অংশ নিতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। কলেজের পানি নিষ্কাশনের ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় এ সমস্যার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে।

একাধীক শিক্ষার্থী বলেন, জলাবদ্ধতার কারণে ক্লাসে যেতে সমস্যা হচ্ছে আর এটা হচ্ছে কলেজের ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকার কারণে। সকাল নয়টায় ক্লাস থাকায় জলাবদ্ধতা উপেক্ষা করে ক্লাসে এসেছি ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতার কারণে পোশাক, বই-খাতা নোংড়া হয়ে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মুজিবুর রহমান বলেন এ বিষয়ে তিনি একাধিকবার উপজেলা প্রশাসনের নিকট আবেদন/অভিযোগ করেছেন। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।উপজেলা শিক্ষানুরাগী মহল/অভিভাবক মহল কলেজের জলাবদ্ধতা দূরীকরণে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

শিক্ষাঙ্গন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই