তারিখ : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

পুরস্কার পেলো রাণীনগরে ট্রেন রক্ষাকারী ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা

পুরস্কার পেলো রাণীনগরে ট্রেন রক্ষাকারী ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা
[ভালুকা ডট কম : ১১ নভেম্বর]
বুদ্ধিমত্তা, সাহসিকতা ও বীরত্বের জন্য প্রশংসাপত্র ও শুভেচ্ছা পুরস্কার পেলো নওগাঁর রাণীনগরে ট্রেন রক্ষাকারী শিক্ষার্থীরা। সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসক আয়োজিত জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা শেষে তাদের এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।

তারা হলো উপজেলার পশ্চিম গবিন্দপুর গ্রামের ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী তাইম হোসেন (১৫), বড়বড়িয়া গ্রামের ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী  হিমেল হোসেন (১১), বিজয়কান্দি গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর শিক্ষার্থী  অন্তর হালদার (১১), একই গ্রামের ৭ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী বিপ্লব হালদার (১৪), পশ্চিম গোবিন্দপুর গ্রামের ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী ইব্রাহিম প্রান্ত (১৩) একই গ্রামের রাণীনগর শেরে বাংলা কলেজের শিক্ষার্থী বাধন হোসেন (২১), রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্স-ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারে ছাত্র আরিফ হোসেন (২১), নওগাঁ সরকারী কলেজের শিক্ষার্থী  ইয়া রাকিব হোসেন (২১) ও কৃষক লোকমান হোসেন (৫১)।

এসময় জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন-অর-রশীদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশিদুল হক, নওগাঁ পৌর সভার মেয়র নজমুল হক সনি, রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন হেলাল, নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন, জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি নবীর উদ্দিনসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারী কর্মকর্তা, জেলার সকল উপজেলার চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন-অর-রশীদ বলেন তাদের সাহসীকতার পুরস্কার দেওয়া সম্ভব নয়। তবে তারা যে ভালো কাজটি করেছে শুধুমাত্র তাদেরকে ভালো কাজে উৎসাহিত করতেই মূলত এই শুভেচ্ছা উপহার দেওয়া হয়। আর তাদের এই ভালো কাজের জন্য প্রদান করা প্রশংসাপত্র আগামীতে তাদেরকে আরোও ভালো কাজের প্রতি উৎসাহ ও সাহস প্রদান করবে এবং তাদের দেখাদেখি সমাজের অন্যান্য মানুষরাও ভালো কাজে উৎসাহিত হবেন বলে আমি আশাবাদি।

উল্লেখ্য, গত ১নভেম্বর সন্ধ্যায় উপজেলার গোনা ইউনিয়নের বড়বড়িয়া নামক স্থানে রেল লাইনের একটি অংশ ভেঙ্গে যায়। যা ওই এলাকার একদল ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা দেখতে পায়। তার একটু পরেই ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা দিনাজপুরগামী আন্তঃনগর একতা এক্সপ্রেস ট্রেন ঘটনাস্থল অতিক্রম করার সময় ছিলো। এর আগেই তারা পরিহিত শার্ট, গামছা, গেঞ্জি যার কাছে যা ছিলো সেটা বাঁশের কঞ্চিতে বেঁধে সংকেত দিয়ে ট্রেন থামায়। তাদের এই তাৎক্ষণিক বুদ্ধির কারণে ট্রেনে থাকা যাত্রীদের বড় ধরনের দুর্ঘটনার হাত থেকে প্রাণ বাঁচান।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই