তারিখ : ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

গৌরীপুরে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী পিঠা উৎসব

গৌরীপুরে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী পিঠা উৎসব
[ভালুকা ডট কম : ২৪ জানুয়ারী]
গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যকে নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌর শহরে সাদেক মেমোরিয়াল কিন্ডার গার্টেন এন্ড স্কুলে প্রতিবছর আয়োজন করা হয়ে থাকে পিঠা উৎসব। বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় এ পিঠা উৎসবের উদ্বোধন করেন ইউএনও ফারহানা করিম। এসময় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকসহ স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

সকাল থেকে এ পিঠা উৎসবের স্টলগুলোতে ছিল স্থানীয় লোকজনসহ কিশোর-কিশোরীদের উপচেপড়া ভীড়। স্টলগুলোতে ছিল গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী শতাধিক পিঠার সমাহার। দুপুরের আগেই সব স্টলের পিঠা বিক্রি হয়ে যায়। স্টলগুলোতে সাজানো ছিল বিবিয়ানা, হৃদয় হরণ, মতিচোর, লবঙ্গ, প্রোটিন, দোল্লা, মেরা, চিতই, নকসী, গোলাপ কলি, দুধপুলি, নারিকেল, ডিমপাকন, সাজনকসী, ডিমসুজি, সাজ, গুলি, ঝিনুক, মালপোয়া, লাডু, সিরিজ, মাংস রুটি, ভাপা, দুধ চিতই, পাঁপড়ী, খেজুর, সমেচা, মসলা, তেজপাতা, রসপাকন, পাটিসাপটা, ফুল, খাজা, বিস্কুট, চেপা, কেক, নকসী, পাক্কন, তেহুরী, রাজদোল্লা, মড়ল লাঠি, কলার সেমাই, শালুকপাতা, ঝাল, তাল, বেনী, খিলী, মাছ, মিষ্টি জাম, কামরাঙ্গা, নৌকা, পাতা বাহারসহ নানা রকমের পিঠা। পিঠা উৎসবে এসব বাহারি পিঠার পসরা সাজিয়ে বসেন ওই স্কুলের শিক্ষার্থীদের নারী অভিভাবকরা।

সাদেক মেমোরিয়াল কিন্ডার গার্টেনের পরিচালক পৌর কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল কাদির বলেন বাঙ্গালির ঐতিহ্য ধরে রাখার পাশাপাশি আমাদের নতুন প্রজন্মকে বিভিন্ন ধরনের পিঠা সম্পর্কে পরিচিতির জন্যই তাদের এ আয়োজন। প্রতিবছর জানুয়ারী মাসে তারা এ পিঠা উৎসবের আয়োজন করে থাকেন। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

বিনোদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই